শনিবার, ২০ জুলাই ২০২৪, ০৮:৩০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
কোটা বাতিলের নামে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তিকে নিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তোষ কুমার অধিকারীর কিছু কথা – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি নওগাঁয় বিস্কুট খেয়ে দুই শিশু কন্যার মৃত্যু- মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি জাফলংয়ে কথা কাটাকাটি থেকে মারামারি অতঃপর ঘুষিতে প্রাণ গেল শ্রমিকের – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি নওগাঁয় কোটা বিরোধী আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মাঠে নামতেই দেয়নি ছাত্রলীগ- মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি কোটা বাতিল আন্দোলনের যৌক্তিকতা নেই: প্রধানমন্ত্রী – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি বীর মুক্তিযোদ্ধার পৈত্রিক সম্পত্তি সরকারিভাবে একোয়ারের নোটিশ, দিশেহারা অসুস্থ বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবার – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি রাজশাহীতে মুক্তিযোদ্ধা ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি চলে গেলেন না ফেরার দেশে বাংলাদেশের সাবেক ক্রিকেটার রাজশাহীর কৃতি সন্তান খালেদ মাসুদ পাইলটের’ মা নার্গিস আরা বেগম- মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি’ বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সন্তান সংসদ চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটি অনুমোদন – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি বাবুগঞ্জে এস এস সি কৃতকার্য ছাত্রী ধর্ষিতা অবশেষে পুত্র সন্তানের মা হলেন – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি

বাণিজ্যিক বেগুন চাষাবাদের সংক্ষিপ্ত কৌশল – মুক্তিযুদ্ধের চেতনা টিভি

সংবাদ দাতার নাম
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ৯০ বার পড়া হয়েছে

বাণিজ্যিক বেগুন চাষাবাদ সংক্ষিপ্ত কৌশল:

চুয়াডাঙ্গা পতিনিধিঃ
বায়েজিদ জোয়ার্দার

বেগুন চারা গুলো ছোট অবস্থায় নিচের দিকে পাশের শাখা ছাটাই করে দিতে হবে।

ঠিক গোড়া হতে বেশি ডালপালা ছড়িয়ে গেলে মালচিং করা বেডে পরিচর্যা করতে সমস্যা হয়।

১ ফুট এর মধ্যে কোন পার্শ্ব শাখা রাখা যাবে না।
এতে ফলন কম হবে না বরং বেশি হবে, গাছ ও মোটা হবে বেশি।

যেমন আপনার গাছের ফল যত কম সংখ্যায় কেজি হবে বাজারে এর চাহিদা তত বেশি হবে।

বেগুনের ফুল যা হবে সবই টিকবে বিশেষ করে পাতার উপর নিচে স্প্রে করতে সহজ হবে।

আমরা সবাই জানি গাছের পাতার নিচে সবচেয়ে বেশি পোকামাকড় অবস্থান করে এজন্য বালাইনাশক স্প্রে করার সময় পাতার উপর নিচে স্প্রে জরুরি।

পুরনো মালচিং তুলে মাটি আলগা করে নিজের রেডি করা জৈব সার শতাংশ প্রতি ১৫ কেজি + টি এস পি ৬০০ গ্রাম + পটাস ৫০০ গ্রাম + জিপসাম ৩০০ গ্রাম + বোরন ৪০ গ্রাম হারে মিশিয়ে বেডে দিয়ে মাটির সাথে মিশিয়ে দিতে হবে।

মাটিতে জো এলে শতাংশ প্রতি বায়োডারমা পাউডার ৪০ গ্রাম হারে ছাইয়ের সাথে ছিটিয়ে আঁচড়া টেনে মাটি সমান করে মালচিং করে ৩ দিন পর চারা রোপন করতে হবে।

চারা রোপণ করার ১২ দিন পর চারার গুড়ার মাটি আলগা করে মালচিং ছিদ্র কিনারা দিয়ে একটু করে ডেপ সার দিয়ে মাটি দিয়ে ঢেকে পর দিন সেচ দিলে চারা বেশ সতেজ হবে।

বালাই নাশক: চারা রোপণ করার ৭ দিন পর বায়ো শিল্ড জৈব ছএাক নাশক লিটার প্রতি ১ মিলি হারে + বায়ো ক্লিন ১ মিলি হারে স্প্রে দেওয়া হলো এবং ২৫ দিন বয়স হলে এগুলোর সাথে বায়োটিন ১ মিলি হারে + করে দিতে হবে।

গাছের অবস্থা দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে হবে এজন্য নিয়মিত গাছ পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

গাছে সমস্যা লেগে ১২ টা বেজে গেল আর পরে একটার পর একটা বিষ দিয়ে তেমন কাজে আসবে না।

সবচেয়ে জরুরি গাছের খাদ্য ঘাটতি যেন না হয় তা নজর রাখা। আর খাদ্য ঘাটতি না হবার সহজ কৌশল হলো পর্যাপ্ত জৈব সার দেয়া।

আমরা জানি জৈব সারে গাছের মূল পুষ্টি উপাদানের সবগুলোই থাকে।

এ বিভাগের আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৮ অপরাহ্ণ
  • ১৬:৪৩ অপরাহ্ণ
  • ১৮:৫১ অপরাহ্ণ
  • ২০:১৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:২২ পূর্বাহ্ণ
©2020 All rights reserved
Design by: POPULAR HOST BD
themesba-lates1749691102